সেরা ৭টি রেসিপি ২০২৩

  সুস্থ ও সুন্দরভাবে বেঁচে থাকতে হলে প্রতিটি মানুষেরই প্রতিদিন বিভিন্ন ধরনের খাবার একটি নির্দিষ্ট পরিমাপে বা পরিমাণে খাওয়া প্রয়োজন। আর ফুড বেনিফিট জেনে খেলে আপনি খাবার থেকে সর্বোচ্চ উপকারিতা পেতে পারেন। তাই আসুন জেনে নি ২০২৩ এর সেরা ৭ টি রেসিপি নিয়ে আজকের আলোচনা।
ছবি:-সংগৃহীত।

পোস্ট সূচীপত্র:-সেরা ৭টি রেসিপি ২০২৩

হালিম তৈরির রেসিপি

প্রস্তুত প্রনালী:-
একটি হাড়ি চুলায় দিন। এবার তাতে তেল দিন। তেল গরম হয়ে গেলে তাতে পেঁয়াজ দিয়ে বেরেস্তা করে নিন। এরপর তাতে একে একে সব মসলা দিয়ে দিন। এবার তাতে মাংস দিয়ে রান্না করুন। আরেকটি হাড়ি চুলায় বসিয়ে তাতে ডাল,চাল এবং সব উপকরণ ঢেলে রান্না করুন। রান্না হয়ে এলে মাংসটুকু ডালের পাত্রে ঢেলে আরো কিছুক্ষণ রান্না করুন। এবার নামিয়ে পেঁয়াজের বেরেস্তা, কাচ আদা, কাঁচামরিচ, পুদিনা পাতা ধনেপাতা ও লেবু দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন। 

মাংস রাধতে যা লাগে:-
  • মাংস -২কেজি
  • পেঁয়াজ -৩০০গ্রাম
  • আদা-২০গ্রাম
  • রসুন-৩০গ্রাম
  • ধনে গুঁড়া-গ্রাম
  • হলুদ গুঁড়া-১টেবিল চামচ
  • মরিচ গুঁড়া-২টেবিল
  • এলাচ গুঁড়া-১টেবিল চামচ 
  • দারুচিনি গুঁড়া-১টেবিল চাবিল চামচ
  • জিরা ভাজা গুঁড়া-২০গ্রাম
  • তেল-১০০গ্রাম।
ডাল রাধতে যা লাগবে :-
  • মসুরের ডাল৫০গ্রাম
  • মটর ডাল৫০গ্রাম 
  • মুগডাল ৫০ গ্রাম 
  • মাশকলাইয়ের ডাল ১০০ গ্রাম 
  • চাল ৫০ গ্রাম 
  • গম ৫০ গ্রাম 
  • ধনে গুড়া ১ চা চামচ 
  • আদা বাটা ২চা চামচ
  • রসুন বাটা ২চা চামচ 
  • মরিচ গুড়া ১চা চামচ
  • হলুদ আধা চা চামচ 
  • লবণ স্বাদ মত

শাহী পোলাও রেসিপি

উপকরণ :-
  • দুই কাপ কালোজিরা বা গোবিন্দ ভোগ বা সামবাবজিরা বা বাসমতি চাল 
  • চার কাপ পানি 
  • ১/২ কাপ গুড়া দুধ 
  • দুই টেবিল চামচ কাঠ বাদাম বাটা 
  • এক চা চামচ আদা-রসুন বাটা 
  • চারটি আলুবোখারা 
  • ১০/১২ টি কিশমিশ
  • ছোট একটি পেঁয়াজকুচি 
  • ১/৪ কাপ বা তেল 
ফোরনের জন্য :-
  • চারটা এলাচ 
  • ছয় টা লবঙ্গ 
  • দুই টুকরো দারুচিনি
  • ছোট দুইটা তেজপাতা 
  • ১/৪ চা চামচ শাহী জিরা
  • ৬-৭টা কাঁচা মরিচ
  • ১/৫কাপ পেঁয়াজ বেরেস্তা
  • ১টেবিল চামচ লেবুর রস
  • ২টেবিল চামচ ঘি
  • ২চা চামচ কেওরা জল
  • ১চিমটি জয়ফল ও জয়এি
প্রস্তুত প্রণালী :
প্রথমেই মাঝারি আছে হাঁড়িতে তেল বাঘি গরম করে নিন। বাবুর্চিরা সাধারণত বাটার অয়েল ব্যবহার করে থাকেন। চাইলে সেটাও দিতে পারেন। তারপর এতে শাহী জিরা-এলাচ-দারুচিনি-লং-তেজপাতা দিয়ে একটু ফড়ন তুলে নিয়ে পেঁয়াজকুচি দিয়ে দিন। পেঁয়াজ কুচি সাদা সাদা করে ভেজে নিতে হবে সোনালী করতে হবে না। 

এতে পোলাও এর রঙ ঠিক থাকবে। পেঁয়াজ হালকা ভাজা হলেই এতে আদা রসুন ও বাদাম বাটা দিয়ে এক মিনিট একটু কষিয়ে নিন। তারপর এতে পানি ও গুঁড়ো দুধ দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে নিন। চুলার আঁচ বাড়িয়ে এই পানিতে একটা বলক তুলে নিতে হবে। পানি ফুটে উঠলে ধুয়ে রাখা চাল গুলো ঢেলে দিতে হবে সাথে এক চা চামচ লবণ দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে দিন। তারপর এই বাড়তি আচেই রান্না করুন মিনিট ৫ ধরে যতক্ষণ না পানি আর চাল সমান সমান হয়ে আসে। 

পানির টেনে আসলেই সাথে সাথে চুলার আঁচ কমিয়ে লো করে দিন। তারপর এতে আলুবোখারা, কিসমিস, লেবুর রস ও কাঁচা মরিচ দিয়ে আলতো করে মিশিয়ে ঢাকনা লাগিয়ে ১৫ মিনিট রান্না করুন।১৫ মিনিট পর ঢাকনা খুলে কেওড়া জল জয়ফল,জয়শ্রী গুড়ো,ঘি ও পেঁয়াজ বেরেস্তা দিয়ে আলতো ভাবে নেড়ে মিশিয়ে নিন। চাইলে স্যাফরন দিতে পারেন। তারপর আবারো ঢেকে ১৫ মিনিট দমে রান্না করুন। হয়ে গেল ঝরঝরে শাহী পোলাও।

বিরিয়ানি রেসিপি

উপকরণ:-
গরুর মাংস বা খাসির মাংস ২ কেজি, পোলট চাল ২কেজি, তেল পরিমাণ মতো, পেঁয়াজকুচি ৩ কাপ, পেঁয়াজ বাটা এক কাপ, কাঁচামরিচ ১৪ থেকে ১৫ টি, আলুবোখারা ৪-৫ টি, দারুচিনি, এলাচি, তেজপাতা, বড় বড় করে কাটা আল, বিরিয়ানি মসলা ২টেবিল চামচ, আদা বাটা এক টেবিল চামচ,রসুন বাটা এক টেবিল চামচ, ধনে গুঁড়ো ও জিরে গুঁড়ো, লাল মরিচ গুঁড়ো ২ চা চামচ করে,এক কাপ ঘন দুধ। 

প্রস্তুত প্রনালী:-
মাংস ধুয়ে নিন।এবার প্রেসার কুকারে তেল দারুচিনি, এলাচ,তেজপাতা, পেঁয়াজ কুচি ২কাপ ও পেঁয়াজ বাটা এক কাপ, আদা বাটা,রসুন বাটা, ধনে গুড়ো, জিরা গুঁড়ো, লবণ, দুই চা চামচ লাল মরিচ গুড়ো, বিরিয়ানি মসলা দিয়ে মাখিয়ে প্রেসার কুকারে রান্না করুন। এরপর আলু গুলো দিয়ে দিন। ঝোল মাখা মাখা হলে নামিয়ে রাখুন। 

এবার অন্য হাড়িতে তেল বাকিটা দিন।এক কাপ পেঁয়াজকুচি, দারুচিনি, এলাচ, তেজপাতা চাল দিয়ে ভালো করে ভেজে আদা বাটাও রান্না করা মাংস বিরিয়ানি মসলা মিশিয়ে পরিমাণ মত গরম পানি দিয়ে ঢাকনা দিয়ে দিন। প্রেসার কুক করতে চাইলে একটা ছিটি দিয়ে নামিয়ে ফেলবেন।

চুলায় করলে পানি কমে এলে চুলার আঁচ কমিয়ে দিন কাঁচামরিচ আলুবোখারা ও দুধ দিয়ে দিন।প্রেসার কুকারে সব আগেই দিয়ে দিবেন। এক সিটি দিয়ে কুকার বন্ধ করে রাখুন পনের মিনিট। এটাই দম দেয়ার কাজ করবে। ঝরঝরে হয়ে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন ঝটপট বিরিয়ানি। 

ডিমের কারি রেসিপি

উপকরণ:-
ডিম,পিঁয়াজ কুচি, আদা বাটা,রসুন কুয়া ৮-১০টা,ধনে পাতা কুচি,টম্যাটো কুচি,ক্যাপসিকাম কুচি,কাঁচা লঙ্কা৩-৪টে,গোটা জিরে,শুকনো লঙ্কা,রান্নার তেল,হলুদ গুড়ো,লঙ্কা গুড়ো, ধনে গুড়ো,জিরে গুড়ো,পরিমান মত নুন,সামান্য চিনি, গরম মসলা।

প্রস্তুত প্রনালী:-
প্রথমে ডিমগুলোর সিদ্ধ করে  নিতে হবে।মেক্সিতে আদ,  রসুন, ক্যাপসিকাম, ধনেপাতা, টমেটো ও কাঁচালঙ্কা দিয়ে একসাথে পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে। ডিম ছাড়িয়ে একটু করে কেটে নিন যাতে ডিমের ভিতর মসলা ভালো করে ঢুকতে পারে।কড়াইতে তেল গরম করুন তাতে সামান্য নুন ও হলুদ দিয়ে মিশিয়ে নিন।

এবার একে একে ডিম করাইতে দিয়ে হালকা লাল করে ডিমগুলি ভেজে নিন। ডিম গুলো একটা বাটিতে  তুলে রাখুন কড়াই থেকে।এবার কড়াইতে থাকা তেলেই ফুরুণ হিসেবে ১/২চামচ গোটা জিরে আর দুটো শুকনো লঙ্কা দিয়ে দিন। অল্প নাড়াচাড়া করে তাতে পেঁয়াজকুচি দিয়ে ভাজতে থাকুন।সামান্য চিনি ছড়িয়ে দেবেন সাদের জন্য। পেঁয়াজ হালকা বাদামি রঙের হয়ে গেলে তাতে তৈরি করে রাখা পেস্টটা দিয়ে দিন। 

এবার একে একে নুন, হলুদ গুড়ো, লঙ্কা গুঁড়ো, ১/২ধনে গুড়ো, জিরে গুড়ো দিয়ে মশলা কষাতে থাকো। মসলা কষানো হয়ে গেলে এতে অল্প পরিমাণে পানি দিয়ে দেন। এবার অল্প আচে ডিমগুলো দিয়ে ঢাকা দিন, ঝোল ফুটতে দিন।ঢাকা খুলে গরম মসলা ছড়িয়ে দিন। তৈরি হয়ে যাবে আপনার ডিমের কারি রেসিপি। গরম গরম পরিবেশ করুন।

আলু পোস্ত রেসিপি

উপকরণ:-
২টা আলু মাঝারি মাপের টুকরো টুকরো করে কাটা,১টা বড়ো পেঁয়াজ কুঁচানো,কাঁচালঙ্কা ৪ টে দুটো চেঁরা আর দুটো গোটা,১টা টম্যাটো ৪ ভাগ করা,পোস্ত বাটা ২টেবিল চামচ,সর্ষের তেল ৪ চামচ, লবণ পরিমাণ মতো, হলুদ গুঁড়ো ১/২চামচ,ধরনের জন্য একটা গোটা শুকনো লঙ্কা তেজপাতা একটা আর কালোজিরা সামান্য। 

প্রস্তুত প্রনালী:-
প্রথমে করায় গরম করে তেল দিতে হবে। তেলে ফোড়ন হবে তেজপাতা, শুকনো লঙ্কা আর কালোজিরে।সামান্য একটু নাড়াচাড়া করে নিতে হবে। ফোড়ন থেকে গন্ধ আসলেই দিয়ে দিতে হবে কেটে রাখা আলু।আলো হাফ ভাজা ভাজা হয়ে এলে এতে দিয়ে দিতে হবে পেয়াজ কুচি আর চেরা কাঁচা লঙ্ক।

পেঁয়াজ আর আলু ভালোভাবে ভেজে নিতে হবে।আলু পেয়াজ ভালোভাবে ভাজা হয়ে গেলে এতে দিতে হবে হলুদ গুঁড়ো পোস্ত বাটা আর সামান্য জল। আলুর সাথে পোস্ত সামান্য নাড়াচাড়া করে নিতে হবে আর ওতে দিয়ে দিতে হবে টমেটো। পোস্ত বেশি ভাজ বার দরকার নেই। 

এরপর দিতে হবে দুই কাপের মতো জল আর পরিমাণ মতো লবণ। এবার এটা ঢাকা দিয়ে রেখে দিতে হবে ১৫ মিনিটের মতন। ১৫মিনিট পর ঢাকা খুলে দিতে হবে সামান্য কাঁচা সর্ষের তেল আর গোটা কাঁচালঙ্কা। গোটা কাঁচালঙ্কা ব্যবহার করার কারণ আলু পোস্ত পরিবেশনের সময় দেখতে ভালো লাগার জন্য।কাঁচা সরিষার তেল দিয়ে দুই মিনিটের মত হতে দিতে হবে। তৈরি বাঙালির আলু পোস্ত। 

কাঁচা কলার কোপ্তা রেসিপি 

প্রথমে আলু ও কাঁচা কলা সেদ্ধ করে খোসা ফেলে দিন। এবার কল,  আলু, বেসন, সামান্য হলুদ গুঁড়ো, লবণ, ধনিয়া গুড়া, জিরা গুড়া, গরম মসলা গুড়া, কাঁচা মরিচ কুচি দিয়ে ভালো করে মেখে নিন। একটা কড়াইতে তেল গরম করে নিন ভালো করে। ভালোভাবে তেল গরম হয়ে গেলে তাতে মিশ্রণটি থেকে গোল গোল আকার করে তেলে একটু একটু করে দিয়ে ভেজে নিন। এভাবেই তৈরি হয়ে যাবে কাচা কলার কোপ্তা। 

চাল কুমড়ার মোরব্বা রেসিপি

উপকরণ:-
চাল কুমড়া একটি, এক কাপ পান,  এক কাপ চিন, দারচিন,  এলাচ, জাফরান সামান্য , দুই টেবিল চামচ ঘি। 

প্রস্তুত প্রনালী:-
প্রথমে চাল কুমড়া আনুমানিক তিন ইঞ্চি লম্বা এক ইঞ্চি চাওড়া টুকরা করুন। একটি কাটা চামচ দিয়ে চার পাশে কয়েকবার খুঁচিয়ে খুচিয়ে নিন । পাত্রে গরম পানি করে চাল কুমড়ার টুকরোগুলো আদা সিদ্ধ করে নিন।এবার কাপড়ে চেপে চেপে সাবধানে সব পানি নিংড়ে নিন। পাএে ঘি দিয়ে চাল কুমড়ার টুকরো 2 মিনিট হালকাভাবে ভাজুন।মাঝারি তাপে চিনি এবং পানি গরম করুন।

 দারুচিনি ও এলাচ দিয়ে জাফরান দি। চাল কুমড়ার টুকরোগুলো দিন মাঝে মাঝে আলতো করে এমনভাবে নারুন যেন টুকরো গুলো ভেঙ্গে না যায়।সিরা ঘন হলে চাল কুমড়ার সঙ্গে লেগে এলে নামিয়ে নিন।এভাবে তৈরি হবে চাল কুমড়ার মোরব্বা।  

এমন নতুন নতুন আরো সব রান্নার রেসিপি পেতে বা যেকোন সমস্যা সমাধান পেতে আমাদের ওয়েবসাইট  ফলো করুন।
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url