মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা - মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর মেসেজ

আসসালামু আলাইকুম! আপনি কি মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা ও মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর মেসেজ সম্পর্কে জানেন? এই পোস্টে মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা ও মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর মেসেজ সম্পর্কে জানতে পারবেন। তাই মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা ও মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর মেসেজ সম্পর্কে জানতে পোস্টটি পড়ুন। 

এছাড়াও বউ এর রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা ও মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর উপায় এবং রাগ ভাঙ্গানোর চিঠি নিয়ে আলোচনা করা হবে। পাশাপাশি ছেলেদের রাগ ভাঙ্গানোর ছন্দ ও রাগ ভাঙ্গানোর পিক সম্পর্কেও জানতে পারবেন। যারা মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা ও মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর মেসেজ সহ অন্যান্য বিষয়ে জানতে চান তাদের জন্য পোস্টটি গুরুত্বপূর্ণ। তো মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা ও মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর মেসেজ সহ অন্যান্য বিষয় সম্পর্কিত পোস্টটি শুরু করি।

সূচিপত্র: মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা - মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর মেসেজ 

মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা - বউ এর রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা

মেয়েরা রাগ করলে রাগ ভাঙ্গানো কতটা কষ্ট একমাত্র যারা ভাঙায় তারাই জানে। তাই যারা সহজে রাগ ভাঙ্গাতে চান তাদের জন্য আজকে মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা কিংবা বউ এর রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা নিয়ে আলোচনা করবো। যারা মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা জানেন না তাদের জন্য এইটা অত্যন্ত উপকারী। মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা জেনে আপনি খুব সহজে মেয়েদের রাগ ভাঙ্গাতে পারবেন। তাই আমাদের সবারই মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা জেনে রাখা উচিত। চলুন জেনে নিই বউ এর রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা ও মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর কবিতা।
রাগ করেছে মিহা মণি
মুখ করেছে লাল,
গাল ফুলেছে নাক ফুলেছে
ফুলছে দুটো চোখ।

রাগ করেছে মিহা মণি
আপন দাদার বোন,
ফেলছে ছুড়ে হাড়ি পাতিল
ছুড়ছে টেলিফোন।

রাগ করেছেনা মিহা মণি
রাগ করোনা আর,
ভুলটা আমার মানছি আমি
মানছি আমি হার।

ঘাট হয়েছে ভুল হয়েছে
ধরছি আমি কান
একটু হাসো সুন্দর করে
ভাঙ্গো এবার মান।।

উপরের কবিতা টি পড়ে যদি কোনো মেয়েকে শোনান তাহলে তার রাগ নিমিষেই শেষ হয়ে যাবে। তো নিশ্চয়ই মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর কবিতাটি আপনাদের কাজে আসবে। আশা মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর কবিতাটি সম্পর্কে আপনাদের ধারণা হয়েছে। এছাড়া মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর মেসেজ ও রাগ ভাঙ্গানোর চিঠি এবং মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর উপায় জানতে পরবর্তী অংশটি পড়ুন। 

মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর উপায়

যখন মেয়রা রাগ করে তখন তাদের কে মানিয়ে নেয়া খুবই কষ্টকর। তাই এদের রাগ কে ভাঙ্গানোর কিছু উপায় রয়েছে। মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর উপায় গুলো হলো:
  • লং ড্রাইভে যাওয়া
  • পছন্দের কোনো জিনিস উপহার দেওয়া 
  • নিজের দোষ কে স্বীকার করে নেওয়া
  • জোর দিয়ে Sorry বলা
  • প্রিয় স্থানে বেড়াতে নিয়ে যাওয়া 
  • পছন্দের ছবি একে দেখানো
  • মজার মজার গল্প শোনানো। 

মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর মেসেজ - রাগ ভাঙ্গানোর চিঠি

মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর জন্য অভিনব একটা উপয়া হতে পারে মেসেজ কিংবা চিঠি। মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর মেসেজ বা রাগ ভাঙ্গানোর চিঠির মাধ্যমে খুব সহজে তাদের রাগ ভাঙ্গাতে পারবেন। তবে মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর মেসেজ টা হতে হবে মনের মতো। যদি মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর মেসেজ তাদের মনের মতো না হয় তাহলে তারা কখনো রাগ থেকে শান্ত হবে না। তাই এই পাঠে আমরা মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর মেসেজ সম্পর্কে জানবো। চলুন জেনে নিই মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর মেসেজ সম্পর্কে। 
মেয়েদের রাগ ভাঙ্গানোর মেসেজ টা আপনি চাইলে চিঠি বা মোবাইল এর মাধ্যমে দিতে পারবেন। প্রথমে তাকে সুন্দর ও মিষ্টি মিষ্টি কথ বলবেন। এর পর কিছুক্ষণ নিজের দোষ গুলো স্বীকার করবেন। মাঝখানে এসে কয়েকটা সুন্দর মেসেজ লিখবেন। মেসেজ গুলে হলো, "আমাকে ভুল বুঝনা, অনেক কিছু হয়তো বলতে পারিনি সেদিন। আমাকে ভুল বুঝনা আজ আমায় কুঁড়ে, কুঁড়ে খায় তোমার ঋণ।" অথবা "ঝেড়ে ফেলো অভিমান, ছুঁয়ে দেখ এই প্রাণ। বন্ধু দুচোখের নিভু-নিভু কালোয়, যে আলোয় ভেসে আসো তুমি। মনে হয় মিশে যাই তোমার আরো কাছে।" এরকম মেসেজ দিয়ে খুব সহজে তাদের রাগ গুলো কে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। 

ছেলেদের রাগ ভাঙ্গানোর ছন্দ 

মেয়েদের তুলনায় ছেলেদের রাগ অত্যন্ত গভীর। যা অতি সহজে ভাঙ্গে না। তাই এই পাঠে আমরা ছেলেদের রাগ ভাঙ্গানোর ছন্দ নিয়ে জানবো। যেটার মাধ্যমে তাদেরও রাগ ভাঙ্গবে খুব সহজেই। ছেলেদের রাগ ভাঙ্গানোর ছন্দ হলো-

"ঝেড়ে ফেলো অভিমান 
ছুয়ে দেখো এই প্রাণ
বন্ধু দুচোখ এর নিভু,
নিভু এই কালোয়, সে আলোয়
ভেসে আছ তুমি
মনে হয় মিশে যায়
তেমার আরো কাছে।"

রাগ ভাঙ্গানোর পিক

রাগ করলে কিভাবে ভাঙ্গাতে হয় তার সুবিধার্থে কিছু পিক দেওয়া হবে এই পাঠে। রাগ ভাঙ্গানোর পিক গুলি দেখে আপনি অতি সহজে ধারণা পাবেন এই সম্পর্কে। রাগ ভাঙ্গানোর পিক নিম্নরূপ:
ইমেজ সোর্স: Bongquotes

ইমেজ সোর্স: premrog

ইমেজ সোর্স: প্রেরণাজীবন
আশা করি আজকের পোস্ট টি আপনাদের কাছে ভালো লেগেছে। পোস্ট টি পড়ে আপনি যদি উপকৃত হয়ে থাকেন তাহলে পোস্টটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। প্রতিদিন এমন ভালো ভালো পোস্ট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি নিয়মিত ভিজিট করুন৷ এতক্ষণ আমাদের সাথে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। 18801 

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url