পটাশিয়াম বেড়ে গেলে কি হয় - পটাশিয়াম কম হলে কি হয়

আপনি কি রক্তে পটাশিয়াম বেড়ে গেলে কি হয় সে সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন। তাহলে আজকের আর্টিকেলটি আপনার জন্য। কেননা আজকের আর্টিকেলটিতে রক্তে পটাশিয়াম বেড়ে গেলে কি হয় সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। তাই রক্তে পটাশিয়াম বেড়ে গেলে কি হয় সে সম্পর্কে জানতে হলে আজকের আর্টিকেলটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন।
পটাশিয়াম বেড়ে গেলে কি হয়
নিচে আপনাদের জন্য সোডিয়াম বেড়ে গেলে কি হয়, পটাশিয়াম জাতীয় খাবার কি কি এবং পটাশিয়াম বেড়ে গেলে কি হয় ইত্যাদি বিষয়গুলো ধাপে ধাপে আলোচনা করা হয়েছে। যেখান থেকে আপনারা খুব সহজেই পটাশিয়াম বেড়ে গেলে কি হয় তা জানতে পারবেন। তাই দেরি না করে এখনই পটাশিয়াম বেড়ে গেলে কি হয় জেনে নিন।

পেজ সূচিপত্রঃ পটাশিয়াম বেড়ে গেলে কি হয় - পটাশিয়াম কম হলে কি হয়

সোডিয়াম বেড়ে গেলে কি হয়

অনেক সময় বিভিন্ন কারণে মানুষের রক্তে সোডিয়ামের পরিমাণ বেড়ে যায়। এটা হতে পারে খাদ্যাভ্যাসের কারণে বা কোন ধরনের রোগের কারণে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে রক্তের সোডিয়াম বেড়ে গেলে কি হয়। কোন কারণে যদি রক্তে সোডিয়াম বেড়ে যায় তাহলে মানুষের শরীরে কি ধরনের ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে।
রক্তে সোডিয়াম এর মাত্রা যদি বেড়ে যায় তাহলে দেখা দিতে পারে আলস্য ও দুর্বলতার মত শারীরিক সমস্যা। আবার যদি সোডিয়ামের মাত্রা অত্যাধিক পরিমাণে বেড়ে যায় তাহলে যে সমস্যাটি দেখা দেয় তা হচ্ছে মানসিক সমস্যা। সোডিয়ামের পরিমাণ অতিরিক্ত বেড়ে গেলে মানসিক স্বাস্থ্য ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং ব্রেন সেল কাজ করে না। 

পটাশিয়াম জাতীয় খাবার কি কি

অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ খনিজ ও ইলেকট্রোলাইট উপাদান হচ্ছে পটাশিয়াম যা আমাদের শরীরের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পটাশিয়াম আমাদের শরীরের রক্তচাপ এবং স্নায়ুর কার্যকারিতা স্বাভাবিক রাখে। সেজন্য আমাদের রক্তে পটাশিয়াম স্বাভাবিক মাত্রায় থাকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এখন পটাশিয়াম জাতীয় খাবার কি কি রয়েছে সেগুলো অবশ্যই আমাদের জানা দরকার। যদি আমরা আমাদের রক্তে পটাশিয়াম বৃদ্ধি করতে চাই তাহলে। 
বাদাম ও দুগ্ধজাত খাবার, সবুজ শাক, বিনস ইত্যাদি খাবারগুলো হচ্ছে পটাশিয়ামযুক্ত খাবার। কারো শরীরে যদি পটাশিয়াম কমে যায় তাহলে সে বেশি বেশি এ খাবারগুলো খেলে তার শরীরে পটাশিয়ামের মাত্রা স্বাভাবিক চলে আসবে। আশা করি পটাশিয়াম জাতীয় খাবার কি কি তা জানতে পেরেছেন।

পটাশিয়াম বেড়ে গেলে কি হয়

পটাশিয়াম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ খনিজ ইলেক্ট্রোলাইট উপাদান যা আমাদের শরীরের স্বাভাবিক রক্তচাপ এবং স্নায়ুর কার্যকারিতা বজায় রাখে। তবে এই পটাশিয়াম বেড়ে গেলে কি হয় অর্থাৎ রক্তে পটাশিয়ামের মাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় বেড়ে গেলে কি হয় সে সম্পর্কে এখন আপনাদের জানানো হবে।
রক্তে পটাশিয়াম বেড়ে যায় তখন যখন একজন ব্যক্তির হাইপারক্যালেমিয়া সমস্যা হয়। তবে হাইপারক্যালেমিয়া সমস্যা হলে কোন উপসর্গ দেখা যায় না। কিডনির সমস্যা হলে বা কিডনি ভালোমতো কাজ না করলে হাইপারক্যালেমিয়া হয়েছে বলে ধারণা করা হয়। তাহলে নিশ্চয়ই জানতে পারলেন পটাশিয়াম বেড়ে গেলে কি হয়। 

পটাশিয়াম কম হলে কি হয়

পটাশিয়াম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ খনিজ ইলেক্ট্রোলাইট উপাদান যা আমাদের শরীরের স্বাভাবিক রক্তচাপ এবং স্নায়ুর কার্যকারিতা বজায় রাখে। তবে এই পটাশিয়াম কম হলে কি হয় অর্থাৎ রক্তে পটাশিয়ামের মাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় কমে গেলে কি হয় সে সম্পর্কে এখন আপনাদের জানানো হবে।

রক্তে পটাশিয়াম এর মাত্রা কমে গেলে সেটাকে বলা হয় হাইপোক্যালিমিয়া। শরীরের অর্থাৎ রক্তে পটাশিয়ামের মাত্রা কমে গেলে দুর্বলতার সমস্যা দেখা দিবে। এছাড়াও যে সমস্যাগুলো দেখা দিবে তা হচ্ছে দীর্ঘস্থায়ী বমি, ডায়রিয়া, অত্যধিক ঘাম এবং রক্তক্ষরণ। 

পটাশিয়াম এর উপকারিতা

পটাশিয়াম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ খনিজ ইলেক্ট্রোলাইট উপাদান যা আমাদের শরীরের স্বাভাবিক রক্তচাপ এবং স্নায়ুর কার্যকারিতা বজায় রাখে। আমাদের রক্তে পটাশিয়াম এর উপকারিতা অনেক। পটাশিয়াম আমাদের শরীরের স্বাভাবিক রক্তচাপ ও বেশির কার্যকারিতা স্বাভাবিক রাখে, কোষে পুষ্টি সরবরাহ করে। পটাশিয়ামের এই ধরনের কাজের জন্য পটাশিয়াম আমাদের শরীরের জন্য খুবই উপকারী।

সোডিয়াম কমে গেলে কি হয়

মানুষের রক্তের সোডিয়াম এর মাত্রা স্বাভাবিক থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তবে কারো যদি সোডিয়ামের মাত্রা কমে যায় তাহলে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হয়। সোডিয়াম কমে গেলে কি হয় তা এখন আমরা জানবো। রক্তে সোডিয়াম কমে গেলে সরাসরি জ্ঞানের ওপর প্রভাব পড়ে। মানুষ তার আপনজনকে ভুলে যায়। সোডিয়াম কমে গেলে অসংলগ্ন আচরণ, এলোমেলো কথা বলা বা উত্তেজনা সৃষ্টি করা ইত্যাদি বিভিন্ন সমস্যা হয়।

পটাশিয়াম ট্যাবলেট

শরীরে রক্তে পটাশিয়ামের মাত্রা কমে গেলে পটাশিয়াম ট্যাবলেট এর মাধ্যমে সেটি ফিরিয়ে আনা যায়।পটাশিয়াম জাতীয় খাবারের মাধ্যমেও রক্তে পটাশিয়ামের মাত্রা স্বাভাবিকের আনা যায়। তবে অনেকে পটাশিয়াম ট্যাবলেট খেয়ে রক্তে পটাশিয়ামের মাত্রা স্বাভাবিক আনার চেষ্টা করে। পটাশিয়াম জাতীয় খাবারের পাশাপাশি ডাক্তারও পটাশিয়াম ট্যাবলেট খাওয়ার জন্য সাজেস্ট করে থাকেন।

আশা করি আজকের আর্টিকেলটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়েছেন এবং রক্তে পটাশিয়াম বেড়ে গেলে কি হয় সে সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। আর্টিকেলটিতে রক্তে পটাশিয়াম বেড়ে গেলে কি হয় ছাড়াও বিভিন্ন বিষয়ে জানতে পেরেছেন যেমন পটাশিয়াম ট্যাবলেট, সোডিয়াম কমে গেলে কি হয়, পটাশিয়াম এর উপকারিতা এবং পটাশিয়াম কম হলে কি হয় ইত্যাদি। আশা করি এ সকল তথ্যগুলো আপনাদের অনেক উপকারে আসবে। তাই ধরনের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বেশি বেশি জানতে ও পড়তে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন, ধন্যবাদ। 21021.

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url