চোখে ঝাপসা দেখার কারণ - মাথা ব্যথা ও চোখে ঝাপসা দেখার কারণ কি

চোখে ঝাপসা দেখার কারণ জেনে থাকা আমাদের জন্য অনেক উপকারী। কারণ অনেক সময় বিভিন্ন কারণে আমাদের চোখে ঝাপসা দেখে থাকি কিন্তু চোখে ঝাপসা দেখার কারণ সম্পর্কে বুঝতে পারি না। আজকের এই আর্টিকেলে চোখে ঝাপসা দেখার কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

তাহলে চলুন দেরি না করে ঝটপট চোখে ঝাপসা দেখার কারণ গুলো জেনে নেওয়া যাক। এর জন্য আপনাকে সম্পূর্ণ আর্টিকেল শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে।

সূচিপত্রঃ চোখে ঝাপসা দেখার কারণ - মাথা ব্যথা ও চোখে ঝাপসা দেখার কারণ কি

মাথা ব্যথা ও চোখে ঝাপসা দেখার কারণ কি - মাথা ঘোরা ও চোখে ঝাপসা দেখার কারণ কি

অনেক সময় আমাদের চোখের কারণে মাথা ব্যথা হয়ে থাকে কিন্তু মাথা ব্যথা ও চোখে ঝাপসা দেখার কারণ কি? এ বিষয়টি সম্পর্কে আমরা সম্পূর্ণ ধারণা পাই না। কারণ মাথাব্যথার বিভিন্ন রকম কারণ হতে পারে। এছাড়া মাথা ঘোরার ও অনেকগুলো কারণ হতে পারে। মাথা ঘোরা ও চোখে ঝাপসা দেখার কারণ কি? কানের একেবারে ভেতরের অংশের কোষ গুলো আমাদের ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণ করে।

আরো পড়ুনঃ হাত পা ঠান্ডা হয়ে যায় কেন - জ্বর হলে হাত পা ঠান্ডা হয় কেন

এই কোষগুলোর সমস্যার কারণে অনেক সময় আমাদের মাথা ঘোরায়, মাথা ব্যথা করে এ ধরনের সমস্যা দেখা যায়। এছাড়া মাথা ঘোরার অন্যতম আরেকটি কারণ হলো পোসচারাল হাইপোটেনশন। হঠাৎ করে রক্তচাপ কমে যাওয়ার ফলে মাথা ঘুরে উঠে। এছাড়া হঠাৎ করে রক্তচাপ বৃদ্ধি পেলে আমাদের মাথা ব্যথা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

অনেক সময় চোখে ছানি পড়ে গেলে চোখে ঝাপসা দেখা যায়। আমরা যদি একটা ক্যামেরার লেন্সের সামনে কোন কিছু রেখে দেই তাহলে যেমন ক্যামেরা কোন কিছুর ছবি তুলতে পারবে না ঠিক তেমন আপনার চোখের সামনে যদি কোন কিছু পড়ে যায় তাহলে চোখে ঝাপসা দেখাই। এই চোখে ঝাপসা দেখার অন্যতম একটি কারণ হলো চোখে ছানি পড়ে যাওয়া।

চোখের রেটিনার কোন সমস্যা থাকলে চোখে ঝাপসা দেখা যায়। এই সমস্যা থেকে ধীরে ধীরে চোখের দৃষ্টি কমে আসতে থাকে চোখে কম দেখতে থাকে হঠাৎ করে চোখে একেবারেই দেখা বন্ধ হয়ে যেতে পারে। তাই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে নেওয়া উচিত।

অনেক বিশেষজ্ঞরা বলেছেন যে মাথা ব্যথা অথবা মাথা ঘোরার সমস্যা থাকলে এই সমস্যা একসময় বড় ধরনের সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে। তাই আমাদের প্রথমে মাথা ব্যথা ও চোখে ঝাপসা দেখার কারণ কি? এ বিষয়ে জেনে নিতে হবে। সাধারণত এই সমস্যার মূল কারণ হতে পারে নার্ভের সমস্যা। স্নায়ু সমস্যার কারণেই হঠাৎ করে দাঁড়ালেই প্রচন্ড পরিমাণে মাথা ব্যথা করে এবং মাথা ঘুরে উঠে।

অনেক সময় আমাদের রক্তচাপ অনেকটা কমে যায় বিশেষ করে যখন অতিরিক্ত পরিমাণে দুশ্চিন্তা করা যায় তখন। যার ফলে আমাদের মাথা হঠাৎ করে ঘুরে ওঠে সাধারণত এই জন্য আমরা চোখে ঝাপসা দেখে থাকি। রক্তচাপ কমে যাওয়া অথবা বৃদ্ধা পাওয়া মাথাব্যথা এবং চোখে ঝাপসা দেখার অন্যতম একটি কারণ। আশা করি মাথা ঘোরা ও চোখে ঝাপসা দেখার কারণ কি? তা জানতে পেরেছেন।

গর্ভাবস্থায় চোখে ঝাপসা দেখার কারণ

গর্ভাবস্থায় অনেক নারী চোখে ঝাপসা দেখে থাকে যার ফলে গর্ভাবস্থায় চোখে ঝাপসা দেখার কারণ সম্পর্কে তারা বুঝতে পারে না। তাই আমাদের প্রথমেই গর্ভাবস্থায় মায়ের এবং শিশুর পর্যাপ্ত সুরক্ষার জন্য গর্ভাবস্থায় চোখে ঝাপসা দেখার কারণ জেনে নিতে হবে। এছাড়া গর্ভাবস্থায় মায়ের পুরনো কোন চোখের সমস্যা থাকলে সেটি আবার দেখা দিতে পারে।

১। অনেক সময় গর্ভাবস্থায় মহিলাদের চোখ শুকিয়ে যায়। এই সমস্যাটি অনেক মহিলারাই ভোগে থাকে। যার ফলে চোখে দেখতে সমস্যা হয় এবং চোখে ঝাপসা দেখায়। গর্ভাবস্থায় চোখে ঝাপসা দেখার অন্যতম কারণ হলো শুষ্ক চোখ।

২। গর্ভাবস্থায় অনেক নারীর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায় যার ফলে চোখে ঝাপসা দেখা শুরু করে। এ সময় উক্ত সমস্যাটি সমাধানের জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে এবং চোখে ঝাপসা দেখার জন্য ড্রপ ব্যবহার করতে হবে।

৩। গর্ভকালীন অবস্থায় উচ্চ রক্তচাপ সমস্যা দেখা যায় যার ফলে চোখে ঝাপসা দেখার সম্ভাবনা থাকে। এছাড়া মাথা ব্যথা হওয়া চোখে অন্ধকার দেখা এরকম সমস্যা দেখা দিতে পারে। এর জন্য সব সময় উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে।

৪। ডায়াবেটিসজনিত সমস্যার কারণে চোখে ঝাপসা দেখা যায়। গর্ভাবস্থায় আগে থেকেই মহিলাদের ডায়াবেটিস থাকতে পারে সে ক্ষেত্রে এই সমস্যাটি দেখা যায়। তাই প্রথমে ডায়াবেটিস মেপে নিতে হবে এবং ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ রাখার জন্য যে করণীয় গুলো তা করতে হবে।

চোখে ডাবল দেখার কারণ

আমরা যখন কোন একটি বস্তুর দিকে তাকায় তখন সাধারণত একটি বস্তুকে একটি দেখতে পায় কিন্তু অনেক সময় আমাদের চোখের কারণে একটি বস্তুকে দুইটি দেখতে পাই। চোখে ডাবল দেখার কারণ সম্পর্কে না জানার কারণে এটি কেন ঘটছে এই বিষয়টি সম্পর্কে জানতে পারি না। চোখে ডাবল দেখার কারণ অনেকগুলো হতে পারে।

আরো পড়ুনঃ অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি যোগ্যতা

এই সমস্যার জন্য চোখের ভেতরের পেশী ভারসাম্যহীনতাকে দায়ী করা যায়। চোখের পেশিগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করতে কয়েকটি নির্দিষ্ট স্নায়ু কাজ করে। এর মধ্যে অন্যতম হলো অকুলোমটর নার্ভ, ট্রকলিয়ার নার্ভ এবং এবডুন্ট নার্ভ। এই স্নায়ু গুলোর মস্তিষ্কের ভেতরে থাকে আমরা চোখে যা দেখি সেগুলো সর্বশেষে চোখের পেশিগুলোতে পৌঁছায়।

মস্তিষ্ক বা চক্ষু কটরের টিউমার এর কারণে অথবা চোখে আঘাত পাওয়ার কারণে আমরা একটি বস্তুকে ডাবল দেখে থাকি। এছাড়া অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপের কারণেও এই সমস্যাটি হয়ে থাকে। এছাড়া মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ বা স্ট্রোকের কারণে ডাবল দেখার মত সমস্যা দেখা যায়। এছাড়া মস্তিষ্কের কারণে এরকম সমস্যা হতে পারে যেমন মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ, মস্তিষ্কের প্রদাহ অন্যতম।

চোখে ঝাপসা দেখার দোয়া

অনেক সময় আমরা চোখে ঝাপসা দেখে থাকি সেজন্য চোখে ঝাপসা দেখার দোয়া পড়ে সেখান থেকে মুক্তি পেতে চায়। কারণ আমরা একমাত্র আল্লাহ তায়ালার কাছে সেখান থেকে পরিত্রাণ পেতে চায়। ইসলাম ধর্মে সব কিছুর একটি নির্দিষ্ট দোয়া রয়েছে। আপনি যদি আপনার চোখের দৃষ্টিকে ভালো রাখতে চান এবং চোখে ঝাপসা দেখার দোয়া পড়তে চান তার নিজের দোয়াটি পড়ুন।

আবদুর রহমান ইবনে আবু বকর রাঃ থেকে বর্ণিত, আমি আমার পিতাকে বললাম, হে আব্বাজান! আমি আপনাকে প্রতিদিন ভোরে ও সন্ধ্যায় তিনবার বলতে শুনি "হে আল্লাহ! আমার দেহ সুস্থ রাখুন। হে আল্লাহ! আমাকে সুস্থ রাখুন আমার শ্রবণ ইন্দ্রিয়ে। হে আল্লাহ! আমাকে সুস্থ রাখুন আমার দৃষ্টিশক্তিতে। আপনি ছাড়া কোনো ইলাহ নাই।" তিনি বলেন, "আমি রাসুলুল্লাহ সাঃ কে এ বাক্যগুলো দ্বারা দোয়া করতে শুনেছি। সে জন্য আমিও তার নিয়ম অনুসরণ করতে ভালোবাসি।" {আবু দাউদ, হাদিসঃ  ৫০৯০}

َ আরবিঃ اللّهمَّ عَافِنِي فِي بَدَنِيْ اللَّهمَّ عَافِنِيْ فِي سَمْعِيْ اللَّهمَّ عَافِنِي فِي بَصَرِي لَا إلهَ إلَّا أنْت

বাংলা উচ্চারণঃ আল্লাহুম্মা আ-ফিনি ফি বাদানি, আল্লাহুম্মা আ-ফিনি ফি সাম-ই, আল্লাহুম্মা আ-ফিনি ফি বাসারি, লা-ইলাহা ইল্লা আনতা।

বাংলা অর্থঃ হে আল্লাহ! আমার দেহ সুস্থ রাখুন। হে আল্লাহ! আমাকে সুস্থ রাখুন আমার শ্রবণ ইন্দ্রিয়ে। হে আল্লাহ! আমাকে সুস্থ রাখুন আমার দৃষ্টিশক্তিতে। আপনি ছাড়া কোনো উপাস্য নাই।

চোখে ঝাপসা দেখার ড্রপ

অনেক সময় চোখের ঝাপসা দূর করার জন্য চোখে ঝাপসা দেখার ড্রপ ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু আমাদের মনে রাখতে হবে চোখে ঝাপসা দেখার ড্রপ ব্যবহার করার আগে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে নিতে হবে।

ভিউটি ড্রপ - এই বছরই ড্রপটির অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা। নির্মাতাদের দাবি এ ড্রপ চোখে দেওয়ার মাত্র ১৫ মিনিটের মধ্যেই কাজ করা শুরু করে দেয়। প্রতিটি ড্রপ ব্যবহারে গড়ে ৬ থেকে ১০ ঘন্টা দৃষ্টি স্পষ্ট থাকবে বলে জানিয়েছে তারা।

আরো পড়ুনঃ স্বপ্নে নিজের মৃত্যু দেখার ইসলামিক ব্যাখ্যা

এই চোখের ড্রপটি ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে অংশগ্রহণ করেছিল প্রায়ই ৭০০ এর ওপরে মানুষ। এই মানুষগুলোর কাছে দেখার সমস্যা ছিল এই সমস্যাটির নাম ছিল প্রেসবায়োপিয়া। তবে চোখের সমস্যা থেকে সম্পূর্ণভাবে মুক্তি দিতে পারবে না এই ড্রপ। তারা সতর্ক করে বলেছে কোন ভাবেই রাতে গাড়ি চালানো সময় কোন কাজ করার সময় এই ড্রপ যেন ব্যবহার না করে।

আমাদের শেষ কথাঃ চোখে ঝাপসা দেখার কারণ - মাথা ব্যথা ও চোখে ঝাপসা দেখার কারণ কি

প্রিয় পাঠকগণ আজকের এই আর্টিকেলে মাথা ব্যথা ও চোখে ঝাপসা দেখার কারণ কি? মাথা ঘোরা ও চোখে ঝাপসা দেখার কারণ কি? গর্ভাবস্থায় চোখে ঝাপসা দেখার কারণ, চোখে ডাবল দেখার কারণ, চোখে ঝাপসা দেখার দোয়া, চোখে ঝাপসা দেখার ড্রপ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। আপনি যদি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ে থাকেন আশা করি উত্তর বিষয়টি সম্পর্কে জানতে পেরেছেন।২০৭৯১

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url